1. netpeonbd@gmail.com : Desk Report : Desk Report
  2. netpeoneditor@gmail.com : Desk Report : Desk Report
  3. admin@irisnewsbd.com : irisnewsbd : Ali Siddiki
  4. naimurrahman4969@gmail.com : naimur rahman naeem : naimur rahman naeem
  5. raju.aamar.fm@gmail.com : Raisul Islam Chowdhury : Raisul Islam Chowdhury
  6. azizul.basir@gmail.com : Azizul Basir : Azizul Basir
  7. rifathossain3535@gmail.com : rifat hossain : rifat hossain
  8. mdriyadhasan700@gmail.com : Riyad hasan : Riyad hasan
আসছে ওমিক্রন - Iris News
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন

আসছে ওমিক্রন

রাইসুল ইসলাম চৌধুরী
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ বুধবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১২৯৭ প্রদর্শিত সময়ঃ
আসছে ওমিক্রন
আসছে ওমিক্রন

করোনা যে সহসা আমাদের ছেড়ে যাচ্ছে না এই বিষয় টা এখন পরিষ্কার, আমরা যদি ডালে ডালে চলি তাহলে করোনা চলে পাতায় পাতায়। প্রতি মুহুর্তে ভোল পাল্টে করনা নতুন নতুন রূপে হাজির হচ্ছে আমাদের সামনে। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে কতদিন আমরা টিকে থাকতে পারবো তা এখন একটি বড় প্রহশ্ন। আরেকটি লকডাউন আমরা ইফোর্ট করতে পারবো না এই কথা এখন দ্রুব সত্য। তাহলে কি অপেক্ষ্যা করছে আমাদের সামনে। করোনা এখন ওমিক্রন নামে আবার ধেয়া আসছে আমাদের দিকে। যার সংক্রমণ ক্ষমতা অনেক অনেক বেশি। সচেতনতার লেশমাত্র নেই আমাদের মাঝে । যার ফলাফল হবে অনেক ভয়াবহ। দক্ষিণ আফ্রিকাতে সদ্য আবিষ্কার হওয়া সার্স-কোভ-২ (করোনাভাইরাসের)-এর একটি ভ্যারিয়েন্ট বা প্রজাতি ‘ওমিক্রন’। করোনা ভাইরাসের নতুন রূপ পাওয়া যাওয়ার পর বিশ্বজুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে । Delta Varient-এর থেকেও ভয়ঙ্কর Omicron variant। আরও বেশি সংক্রামক এবং আরও দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়তে চলেছে করোনার এই নয়া প্রজাতি, আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

চিকিৎসকদের মতে ওমিক্রনের কিছু লক্ষণ রয়েছে যা সম্পূর্ণ ভিন্ন। যদিও আক্রান্তদের মধ্যে ওমিক্রনের লক্ষণ হালকা এবং কিছু রোগী হাসপাতালে ভর্তি না হয়েই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (সামা) প্রধান Dr. Angelique Coetzee বলেছেন যে গত ১০ দিনে ৩০ জন রোগীকে করোনা ভাইরাসের নতুন রূপ ওমিক্রন দ্বারা সংক্রমিত হতে দেখেছেন। ওমিক্রন দ্বারা সংক্রামিত রোগীর চরম ক্লান্তি, গলা ব্যথা, পেশী ব্যথা এবং শুকনো কাশির মতো সমস্যা রয়েছে। শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট থেকে এর লক্ষণগুলো বেশ আলাদা।

বাংলাদেশের অর্থনীতির প্রধান দুই চালিকা শক্তি রপ্তানি ও রেমিট্যান্স৷ রপ্তানি আয় কমে গেলে দেশের শিল্প কারখানা গুলোতে শ্রমিকদের আয় কমে যাওয়া বা কর্মসংস্থানের অনিশ্চয়তা তৈরি হবে৷ অন্যদিকে প্রবাসীরা টাকা পাঠানো কমিয়ে দিলে তাদের পরিবার দেশে আগের মত খরচ করতে পারবেন না৷ এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে ব্যবসা-বাণিজ্যে৷ কমে যাবে বেচা-কেনা৷ চাহিদা কমে গেলে ভোক্তা পণ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষতির মুখে পড়বে ৷ আবার বাংলাদেশেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে অর্থনীতির গতি ধীর হয়ে যাবে৷ সব মিলিয়ে চলতি বছরের জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য পূরণ বড় চ্যালেঞ্জ হবে সরকারের জন্যে৷ মোদ্দাকথা ওমিক্রন যদি আমাদের দেশে আবারো ব্যাপক ভাবে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে আমাদের উঠে দাঁড়ানো অনেক মুশকিল হবে। চাকুরীর বাজের বেশ কিছু বছর ধরে এমনিতেই মন্দা তার উপর বিগত দুই বছরে করনার প্রভাবে সারা পৃথিবীর অর্থিনিতী একে বারে নাজুক অবস্থাতে রয়েছে। তাই এই অবস্থাতে ওমিক্রন আমাদের উপর কি প্রভাব ফেলে তা সময়ই বলে দেবে। তবে টিকা গ্রহণ, ব্যাক্তিগত সচেতনতাই পারে আমাদের এই মহামারি থেকে বাঁচিয়ে রাখতে। মনে রাখবেন আপনি নিরাপদ থাকলে আপনার পরিবার নিরাপদ থাকবে।

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর

কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । আইরিস নিউজ বিডি.কম,আইরিস মিডিয়া বাংলাদেশের একটি  প্রতিষ্ঠান ।

error: Content is protected !!